আবার এক নাবালিকা ধর্ষিত হল কুমারগঞ্জে

দিব্যেন্দু বসাক Jan 17, 2020 - Friday বালুরঘাট


আবার‌ও নাবালিকা ধর্ষণের অভিযোগ উঠল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ থানা এলাকায়। অভিযোগ আজ আনুমানিক সকাল সাড়ে এগারোটা নাগাদ ষষ্ঠ শ্রেণীতে পাঠরতা বছর এগারোর নাবালিকাটি তার বাড়ির সামনের রাস্তায় বসে রোদ পোহাচ্ছিল। সেই সময় অভিযুক্ত নাবালিকার মুখে গামছা দিয়ে বেঁধে - মুখ চেপে নাবালিকার বাড়ির পশ্চিম দিকে একটি পুকুর পাড় রয়েছে সেই পুকুরপাড়ের উত্তরদিকের নির্জন জঙ্গলে নাবালিকার ইচ্ছার বিরুদ্ধে বলপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। নাবালিকা ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচবার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেও কোন উপায় হয়নি। শেষমেষ তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে নাবালিকাকে উদ্ধার করে বলে জানান নাবালিকার পিতা । আজ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ থানায় ধর্ষণের ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয়। কুমারগঞ্জ থানা সূত্রে এবং স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ,অভিযুক্তদের তল্লাশিতে পুলিশ নামলেও অভিযুক্ত এখনও অধরা। পরিবার সূত্রে জানাযায়, গতকাল পৌষ সংক্রান্তির গঙ্গা স্নান উপলক্ষে ধর্ষিতা নাবালিকার বাবা ও ঠাকুরমা পার্শ্ববর্তী বৈদ্যনাথ নামক জায়গায় আত্রেয়ী নদীতে পুণ‍্য স্নান করতে গিয়েছিল এবং সেসময় নাবালিকা ও তার মা বাড়িতে ছিলেন। নাবালিকা অত্যাধিক ঠান্ডার কারণে বাড়ির সামনের রাস্তায় বসে রোদ পোহাচ্ছিল। আচমকাই নাবালিকার দু তিনটি বাড়ির পাশের এক বয়স ছত্রিশের প্রতিবেশী তার মুখে গামছা বেঁধে মুখ চেপে তাঁকে নির্জন জঙ্গলময় এক পুকুর পাড়ে নিয়ে গিয়ে বলপূর্বক ধর্ষণ করে। সেসময় নাবালিকার আর্তনাদে আশেপাশের প্রতিবেশীরা তাঁকে উদ্ধার করে বলে জানান নির্যাতিতার পিতা। অভিযুক্ত সোনামন দাস (৩৬) পেশায় কৃষক। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত পলাতক বলে জানা যায়। নির্যাতিতার মেডিক্যাল হয়েছে বলে জানান নির্যাতিতার পিতা।


গত কয়েকদিন পূর্বেই কুমারগঞ্জে এক নাবালিকাকে গণ ধর্ষণ করে চাকু দিয়ে গলা কেটে খুন করা হয়েছিল এবং খুন পরবর্তীতে নাবালিকাটিকে মোটর সাইকেল থেকে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। সেই ক্ষত এখনো দগদগে। শুধুমাত্র দক্ষিণ দিনাজপুর নয় পুরো ভারত জুড়ে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন আবালবৃদ্ধবনিতারা।


অভিযুক্তদের দ্রুত ও চরম শাস্তির দাবিতে পথে নেমেছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব থেকে শুরু করে বাম - কংগ্রেস সকলে। কুমারগঞ্জে ছুটে এসেছেন সাংসদ তথা বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী লকেট চ্যাটার্জি ,বিজেপির যুব মোর্চা সভাপতি ও বিশিষ্ট আইনজীবী দেবজিৎ সরকার , বালুরঘাট লোকসভার সাংসদ ডঃ সুকান্ত মজুমদার। এমনকি দিল্লি থেকে ছুটে এসেছেন ডক্টর যোগেন্দ্র পাসোয়ানের নেতৃত্বে তপসিলি জাতি আয়োগের চার সদস্যের প্রতিনিধি দল। গতকালই অভিযুক্তদের দশ দিন রিমান্ড শেষ হবার একদিন পূর্বে কুমারগঞ্জ থানার পুলিশ তিন অভিযুক্তকে আদালতে তোলে এবং এডিশনাল ডিস্ট্রিক্ট জাজ ,ফার্স্ট কোর্ট অভিযুক্তদের তিন দিনের জেল হেপাজতের নির্দেশ দেয়। ঠিক এমন সময়ে পুনরায় অপর একটি ধর্ষণের অভিযোগের ঘটনায় শিহরিত নাগরিক সমাজ। প্রত্যেকের একটাই দাবী এমন নরপিশাচদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে চরম শাস্তি দেওয়া হোক ।

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন

আপনার পছন্দ

বিজ্ঞাপন
Jishu da

আরও খবর

বিজ্ঞাপন
Jishu da
HS02