রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড ৩৫,২০৮ টি নন-টেকনিক্যাল শূন্যপদ পূরণের কাজ শুরু করেছে!

তন্ময় দও Jun 19, 2020 - Friday ময়নাগুড়ি 138


রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড ৩৫ হাজার ২০৮টি নন-টেকনিক্যাল শূন্যপদ পূরণের কাজ শুরু করেছে।রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড ৩৫ হাজার ২০৮টি নন-টেকনিক্যাল শূন্যপদ পূরণের জন্য অনলাইন আবেদনের আহ্বান জানিয়েছিল। স্নাতকোত্তর এবং স্নাতক স্তরের ছাত্রছাত্রীরাই এই পদের জন্য আবেদন করে ছিলেন। এই পদে ১ কোটি ২৬ লক্ষ ৩০ হাজার ৮৮৫টি অনলাইন আবেদন জমা পড়েছিল।



মিনিস্ট্রি অফ রেলওয়ের তরফে জারী করা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে - ভারতীয় রেল গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তা এবং পরিচালনমূলক পদে পৃথিবীর মধ্যে অন্যতম বৃহত্তম নিয়োগ প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করেছে। রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড ২০১৮ সালের তেশরা ফেব্রুয়ারী অ্যাসিস্ট্যান্ট লোকো পাইলট এবং টেকনিশিয়ানের জন্য ৬৪ হাজার ৩৭১টি শূন্যপদ পূরণের বিজ্ঞাপন দিয়েছিল। আবেদনপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ছিল ২০১৮র ৩১শে মার্চ। এই পদের জন্য মোট ৪৭ লক্ষ ৪৫ হাজার ১৭৬টি অনলাইন আবেদনপত্র জমা পড়ে। তিনটি পর্যায়ে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। প্রথম পর্যায়ে ছিল কম্পিউটার ভিত্তিক অনলাইন পরীক্ষা, দ্বিতীয় পর্যায়ে ছিল স্বাস্থ্য পরীক্ষা, তৃতীয় পর্যায়ে ছিল নথি যাচাই।





আবেদনকারী প্রার্থীদের মধ্যে থেকে ৫৬ হাজার ৩৭৮ জন প্রার্থী এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছিলেন। এরমধ্যে অ্যাসিস্ট্যান্ট লোকো পাইলট পদে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন ২৬ হাজার ৯৬৮ জন প্রার্থী। টেকনিশিয়ান পদে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন ২৮ হাজার ৪১০ জন প্রার্থী। এরমধ্যে থেকে ৪০ হাজার ৪২০ জন প্রার্থীকে ইতিমধ্যে নিয়োগপত্র দেওয়া হয়েছে। সাধারণত অ্যাসিস্ট্যান্ট লোকো পাইলট পদে চাকরি পাওয়া নতুন প্রার্থীদের ১৭ সপ্তাহ এবং টেকনিশিয়ান পদে চাকরি পাওয়া নতুন প্রার্থীদের ৬ মাস প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু কোভিড-১৯এর কারণে লকডাউনের জেরে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত প্রার্থীদের প্রশিক্ষণের ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা দেখা দিলেও, এখন ধীরে ধীরে তা স্বাভাবিক হয়েছে। উল্লেখ্য, লকডাউনের আগেই যোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগপত্র দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কিছু প্রার্থী করোনা এবং লকডাউনের কারণে চাকরিতে যোগদান করতে পারছিলেন না।





সমস্ত নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত প্রার্থীদের পর্যায়ক্রমে যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে রেলওয়ে নিয়োগপত্র দিয়েছে। ট্রেন পরিচালনা এবং নিরাপত্তার কারণে নতুন নিয়োগকারীদের প্রশিক্ষণের অবশ্যই প্রয়োজন রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে যোগ দেওয়ার আগে তাদের ক্লাসরুম ভিত্তিক প্রশিক্ষণ এবং ক্ষেত্রীয় পর্যায়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়ে থাকে। এই প্রশিক্ষণ পর্ব চলে ব্যাচ ভিত্তিক এবং ক্লাসরুম, হোস্টেল, পাঠাগার ও প্রশিক্ষকদের সুবিধা মতো।





করোনা সংক্রমণের জেরে এবং সামাজিক দূরত্বের নিয়মাবলী অনুসরণ করার কারণে ও এই মহামারীকে আটকানোর জন্য সমস্ত ধরণের প্রশিক্ষণ স্থগিত রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পুনরায় এই প্রশিক্ষণ পর্ব শুরু হবে।





অ্যাসিস্ট্যান্ট লোকো পাইলট এবং টেকনিশিয়ান পদে লোক নিয়োগ করা ছাড়াও রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড ৩৫ হাজার ২০৮টি নন-টেকনিক্যাল শূন্যপদে অনলাইন আবেদনের জন্য আহ্বান জানিয়েছিল। স্নাতকোত্তর এবং স্নাতক স্তরের ছাত্রছাত্রীরাই এই পদের জন্য আবেদন করে ছিলেন। এই পদে ১ কোটি ২৬ লক্ষ ৩০ হাজার ৮৮৫টি অনলাইন আবেদন জমা পড়েছিল। কোভিড পূর্ববর্তী পর্যায়ে এই পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি প্রক্রিয়ার কাজ অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর জেরে তা বাধা পেয়েছে। পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলে ভারতীয় রেল এই নিয়োগ প্রক্রিয়াটি ত্বরান্বিত করবে।





বর্তমান পরিস্থিতিতে কোভিড-১৯ মহামারীর জেরে অপ্রত্যাশিত সমস্যাগুলি এখন মোকাবিলা করা দরকার। প্রার্থীদের ফেস মাস্ক পরা, পরীক্ষা কেন্দ্রে নকল আটকানো, পরীক্ষা কেন্দ্রের বাইরে জমায়েত আটকানো, প্রতিটি শিফ্টে পরীক্ষা কেন্দ্রগুলির স্যানিটেশন করা, সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে পরীক্ষা কেন্দ্রের ভেতরে প্রার্থীদের বসার ব্যবস্থা করা- এর মতো বিষয়গুলিকে গুরুত্ব দিয়ে এখন দেখতে হবে। কোভিড-১৯এর প্রেক্ষাপটে সমস্ত নিয়মাবলী পর্যবেক্ষণ করার পর ভারতীয় রেল ১.২৫ কোটি আবেদনকারীর পরীক্ষার জন্য সমস্ত ব্যবস্থাপনা নির্ধারণে একটি কার্যকর কৌশল তৈরি করছে।





রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড প্রয়োজন অনুযায়ী তাদের ওয়েবসাইট এবং প্রার্থীদের ব্যক্তিগতভাবে এসএমএস ও ইমেলের মাধ্যমে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলেছে। প্রার্থীদের কেবলমাত্র এই সরকারি যোগাযোগ মাধ্যমগুলির ওপরই বিশ্বাস রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত ভুয়ো এবং গুজবে কান না দিতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এতে প্রার্থীদের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হতে পারে এবং পরীক্ষার প্রস্তুতির ওপর বিরুপ প্রভাব ফেলতে পারে।

আপনাদের মূল্যবান মতামত জানাতে কমেন্ট করুন ↴

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন

আপনার পছন্দ

বিজ্ঞাপন
PMJOK

আরও খবর

বিজ্ঞাপন
PMJOK
Jishu da